Breaking News
Home / আন্দোলনের খবর / স্ট্যালিনের মূর্তি স্থাপন করলেন নিঝনি নোভগোরোদের মানুষ

স্ট্যালিনের মূর্তি স্থাপন করলেন নিঝনি নোভগোরোদের মানুষ

পুঁজিবাদী বিশ্ব যখন ভয়াবহ বাজার সঙ্কটে হাবুডুবু খাচ্ছে, এই সঙ্কট থেকে বেরনোর কোনও রাস্তাই খুঁজে পাচ্ছে না, তখন বিশ্বজুড়ে সমাজতন্ত্রের প্রতি মানুষের আকর্ষণ ক্রমাগত বেড়ে চলেছে৷ তাই সুযোগ পেলেই  পুঁজিপতিরা, তাদের বেতনভুক তথাকথিত বিশেষজ্ঞরা ও তাদের পরিচালিত সংবাদমাধ্যমগুলি রাশিয়ায় সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবের অন্যতম রূপকার মহান স্ট্যালিনের নিন্দায় মুখর হচ্ছে, সমাজতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে হিটলারি স্বৈরাচারের আর এক রূপ বলে আতঙ্ক ছড়ানোর চেষ্টা করছে৷ ঠিক এই সময়েই খোদ রাশিয়ায় নতুন করে স্ট্যালিনের মূর্তি স্থাপন করছেন সেখানকার সাধারণ মানুষ৷

রাশিয়ার নিঝনি নোভগোরোদ অঞ্চলের বোর শহরে গত ২৪ জুন জোসেফ স্ট্যালিনের একটি মূর্তির আবরণ উন্মোচন করলেন সেখানকার মানুষ৷ কমিউনিস্ট পার্টি অফ রাশিয়ান ফেডারেশনের স্থানীয় নেতা আলেক্সেই জোরভের নেতৃত্বে আবরণ উন্মোচন কর্মসূচিতে যোগ দেন শত শত মানুষ৷ কমিউনিস্ট পার্টির কর্মী–সমর্থকরা ছাড়াও যোগ দিয়েছিলেন বহু সাধারণ মানুষ৷

এই ঘটনার ঠিক চার দিন আগে জার্মানির গেলসেঙ্কির্চেন শহরের মানুষ স্থাপন করেছেন নভেম্বর বিপ্লবের রূপকার মহান লেনিনের একটি মূর্তি৷

নিঝনি নোভগোরোদে স্ট্যালিনের মূর্তি স্থাপনে বাধা দিয়েছিল বর্তমান পুঁজিবাদী রাশিয়ার প্রতিভূ বোর শহরের সরকারি প্রশাসন৷ উদ্যোক্তারা সেই আপত্তি ফুৎকারে উড়িয়ে দিয়েছেন৷

মূর্তির আবরণ উন্মোচন করতে গিয়ে কমিউনিস্ট পার্টি অফ রাশিয়ান ফেডারেশনের অপর এক নেতা   ভলাদিস্লাভ ইগোরোভ সমাজতান্ত্রিক রাশিয়ার গঠনে মহান স্ট্যালিনের নেতৃত্বকারী ভূমিকার কথা শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন৷ তিনি বলেন, স্ট্যালিনের নেতৃত্ব সোভিয়েট ইউনিয়ন গোটা বিশ্বকে হিটলারের ফ্যাসিবাদী আক্রমণের হাত থেকে রক্ষা করতে পেরেছিল৷ তিনি বলেন, বিশ্ব সাম্যবাদী আন্দোলনের মহান নেতা লেনিনের যথার্থ উত্তরসূরি হিসাবে স্ট্যালিন সোভিয়েট ইউনিয়নকে ভয়ানক পিছিয়ে পড়া একটি দেশ থেকে একটি অত্যন্ত আধুনিক ও উন্নত দেশে পরিণত করেছিলেন৷

আজকের একমেরু পুঁজিবাদী–সাম্রাজ্যবা বিশ্ব অনিরসনীয় সংকটে ছটফট করছে৷ কোনও ভাবেই এ থেকে বেরিয়ে আসার পথ খুঁজে পাচ্ছে না তারা৷ করোনা অতিমারি এই ব্যবস্থার সংকট আরও প্রকট করে তুলে ধরেছে৷ সাধারণ মানুষের জীবন আজ গরিবি, বেকারি, মূল্যবোধহীনতায় বিপর্যস্ত৷ বাঁচার রাস্তা খুঁজতে বিশ্বের দেশে দেশে তারা নতুন করে সমাজতন্ত্রের দিকে ঝুঁকছে৷ মার্কস–এঙ্গেলস–লেনিনের দেখিয়ে যাওয়া পথে হেঁটে জীবনযন্ত্রণার সমাধান অন্বেষণ করছে৷ এই অবস্থায় হয় কথায় নয় কথায় সমাজতান্ত্রিক ব্যবস্থা এবং সেই ব্যবস্থার রূপকারদের চরিত্রে কালি মাখানোর অবিরাম অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পুঁজিবাদের আতঙ্কিত রক্ষকেরা৷ জার্মানি, রাশিয়া সহ বিশ্বের দেশে দেশে লেনিন–স্ট্যালিনের মতো সমাজতন্ত্রের পথ প্রদর্শকদের মূর্তি প্রতিষ্ঠার ঘটনা তাদের আতঙ্ক আরও বাড়িয়ে তুলেছে৷