Breaking News
Home / খবর / ব্যাহত হচ্ছে মেডিকেল শিক্ষা মুখ্যমন্ত্রীকে স্মারকলিপি

ব্যাহত হচ্ছে মেডিকেল শিক্ষা মুখ্যমন্ত্রীকে স্মারকলিপি

 

মেডিকেল কলেজে জুনিয়র ডাক্তারদের অবস্থান

ঐতিহ্যবাহী কলকাতা মেডিকেল কলেজকে করোনা হাসপাতালে পর্যবসিত করার ফলে বিপুল সংখ্যক জটিল রোগে আক্রান্ত মানুষ যেমন চিকিৎসা পরিষেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন, তেমনই ভীষণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে মেডিকেল শিক্ষা৷ অবিলম্বে মেডিকেল শিক্ষা ও করোনা নয় এমন জটিল রোগের চিকিৎসা শুরু করার দাবি জানিয়ে ৩০ জুন মেডিকেল সার্ভিস  সেন্টার এবং সার্ভিস ডক্টর্স ফোরামের পক্ষ থেকে মুখ্যমন্ত্রী ও মুখ্যসচিবের কাছে স্মারকলিপি প্রেরণ করা হয়৷

করোনা পর্বের শুরুতেই রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে কলকাতা মেডিকেল কলেজের মতো ঐতিহ্যবাহী একটি প্রতিষ্ঠানকে করোনা হাসপাতালে পর্যবসিত করার কথা ঘোষণা করা হয়৷ পরে অবশ্য সাময়িক ভাবে সে সিদ্ধান্ত বাতিল করা হয় এবং করোনা বহির্ভূত অন্যান্য রোগের চিকিৎসা এবং মেডিকেল শিক্ষার কাজ শুরু করা হয়৷ কোনও এক অজানা কারণে গত মাসে আবার মেডিকেল কলেজকে সম্পূর্ণ করোনা হাসপাতালে পরিণত করা হল৷ বতর্মানে সেখানে সমস্ত জটিল রোগের চিকিৎসাই বন্ধ রয়েছে৷ বন্ধ রাখা হয়েছে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর স্তরের ডাক্তারি পঠন–পাঠন৷ ফলে একদিকে হাজার হাজার দরিদ্র সাধারণ মানুষ হার্ট, লিভার, কিডনি সহ সমস্ত জটিল রোগের অপারেশন এবং ক্যান্সার, টিবি সহ সমস্ত জটিল রোগের চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন এবং অনেকেই বিনা চিকিৎসায় মারা যাচ্ছেন৷ অন্যদিকে এশিয়া মহাদেশের সবচেয়ে প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী মেডিকেল কলেজে ডাক্তারি পঠন–পাঠন সম্পূর্ণ রূপেই বন্ধ রয়েছে৷ ফলে এই কলেজে রাজ্যের সবচেয়ে মেধাবী ছাত্ররা ভর্তি হওয়া সত্ত্বেও তাদের ভবিষ্যৎ চূডান্তভাবে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে৷

সংগঠনগুলির পক্ষ থেকে প্রথম থেকেই রাজ্য সরকারের কাছে দাবি জানানো হয়েছে, করোনা চিকিৎসার জন্য আলাদা হাসপাতাল ও উপযুক্ত পরিকাঠামো তৈরি করার৷ মুখ্যমন্ত্রীর কাছে ২৮ মার্চ এবং ১৭ জুনের বৈঠকেও বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে৷ তিনি সেদিন কথা দিয়েছিলেন, মেডিকেল কলেজে করোনার পাশাপাশি অন্যান্য রোগের চিকিৎসাও কোভিড–১৯ প্রোটোকল মেনে শুরু করা হবে এবং মেডিকেল শিক্ষারও কোনও ক্ষতি হবে না৷

গত সপ্তাহে যখন এমসিআই ভিজিট হয়, তখনও কর্তৃপক্ষ হলফনামা দিয়ে জানিয়ে দেয় মেডিকেল কলেজে করোনার পাশাপাশি সমস্ত রোগের চিকিৎসাই চালু রাখা হয়েছে৷ অথচ কয়েকদিন পরেই ২৯ জুন রাজ্যের স্বাস্থ্যশিক্ষা অধিকর্তা এক নির্দেশিকায় জানিয়েছেন, কলকাতা মেডিকেল কলেজ ও সাগর দত্ত মেডিকেল কলেজের ইন্টার্নদের পঠন–পাঠনের জন্য অন্যান্য মেডিকেল কলেজে পাঠানো হবে৷

কর্তৃপক্ষের এই দ্বিচারিতায় সংগঠনের পক্ষ থেকে বিস্ময় প্রকাশ করা হয়েছে৷ বলা হয়েছে, এর নিন্দা জানানোর কোনও ভাষা আমাদের জানা নেই৷ দাবি করা হয়েছে:

১) কোভিড প্রোটোকল মেনে এবং ট্রায়েজ স্ক্রীনিং–এর সমস্ত নিয়ম মেনে, হাজার হাজার দরিদ্র সাধারণ মানুষের স্বার্থে এবং মেডিকেল কলেজের মেধাবী ছাত্রদের পঠন–পাঠনের স্বার্থে অবিলম্বে মেডিকেল কলেজে করোনার পাশাপাশি অন্যান্য রোগের চিকিৎসা শুরু করা হোক৷

২) পাশাপাশি ক্রমবর্ধমান করোনা রোগীদের সুচিকিৎসার লক্ষ্যে উপযুক্ত পরিকাঠামো এবং উপযুক্ত সংখ্যক বেড ও ডাক্তার নার্স স্বাস্থ্যকর্মী বিশিষ্ট নতুন নতুন করোনা হাসপাতাল খোলা হোক এবং কলকাতা মেডিকেল কলেজ ও সাগর দত্ত মেডিকেল কলেজ ইত্যাদি হাসপাতালের পুরনো চিকিৎসা ও মেডিকেল শিক্ষার পরিবেশ ফিরিয়ে দেওয়া হোক৷