Breaking News
Home / খবর / পেট্রল-ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে ১-৬ জুলাই বিক্ষোভের ডাক

পেট্রল-ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে ১-৬ জুলাই বিক্ষোভের ডাক

 

ফাইল চিত্র

কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের পেট্রল ডিজেল কেরোসিনের মূল্যবৃদ্ধি সহ জনবিরোধী নীতির প্রতিবাদে আন্দোলনের ডাক দিল এস ইউ সি আই (সি)। ১ জুলাই থেকে ৬ জুলাই প্রতিবাদ সপ্তাহ পালন করার আহ্বান জানিয়েছে দলের রাজ্য কমিটি। ১ জুলাই প্রতিটি গ্রাম স্তরে বিক্ষোভ এবং ২ থেকে ৫ জুলাই হাটে বাজারে গঞ্জে জনবহুল এলাকায় কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের জনবিরোধী নীতির বিরুদ্ধে প্রচার আন্দোলন চলবে। আন্দোলনের এই কর্মসূচি ঘোষণা করে রাজ্য সম্পাদক কমরেড চণ্ডীদাস ভট্টাচার্য বলেন, সমস্ত রেশন গ্রাহকদের রেশন কার্ডের সাথে আধার কার্ডের লিঙ্ক আগস্ট মাসের মধ্যে করাতে হচ্ছে, অন্যথায় তাদের রেশন বন্ধ হয়ে যাবে। কিন্তু লিঙ্ক করাতে খুবই সমস্যা হচ্ছে। কখনও সার্ভার ডাউন, কখনও আবার রেশন কার্ড ও আধার কার্ডে নাম এক না হলেও হচ্ছে না। এই সমস্যা প্রতিকারে স্থানীয় স্তরে আন্দোলন হবে। ৬ জুলাই পশ্চিমবাংলার প্রতিটি ব্লকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কুশপুতুল জ্বালিয়ে বিক্ষোভ সংগঠিত হবে।

কমরেড ভট্টাচার্য বলেন, করোনা মোকাবিলায় কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের উদাসীনতার বিরুদ্ধে অনলাইন ও অফলাইন প্রতিবাদ চলছে। দলের ছাত্র-যুব-মহিলা স্বেচ্ছাসেবকরা করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা পরিষেবা, অি’জেন সরবরাহ, কমিউনিটি কিচেন পরিচালনা, পরিযায়ী শ্রমিক, কাজ হারানো দুর্গত মানুষ এবং ইয়াস ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের ত্রাণ বিতরণের মতো কর্মসূচিতে আত্মনিয়োগ করেছেন।

দিল্লিতে ঐতিহাসিক কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে গ্রামে গ্রামে সাধারণ কৃষকদের জড়িত করে কৃষক সংগ্রাম কমিটি গড়ে তোলার কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে। করোনা অতিমারির সুযোগ নিয়ে রেল ব্যাংক-বিমা ভারী শিল্পগুলিকে জলের দরে কর্পোরেট মালিকদের হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে। এর বিরুদ্ধে শ্রমিক বেকার যুবক হকার মহিলা ছাত্র কাজ হারানো নানা অংশের মানুষকে নিয়ে গড়ে ওঠা কমিটির উদ্যোগে আন্দোলন তীব্র করতে হবে।

জনস্বাস্থ্য রক্ষা, করোনার সুষ্ঠু চিকিৎসা, অতি দ্রুত টিকাকরণ ইত্যাদি সহ চিকিৎসক নার্স স্বাস্থ্যকর্মীদের দাবিগুলি নিয়েও সংশ্লিষ্ট অংশের জনগণকে যুক্ত করে কমিটি ও আন্দোলনের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

কেন্দ্রীয় সরকারের জাতীয় শিক্ষানীতি-২০২০ র বিরুদ্ধে, শিক্ষাক্ষেত্রে বিজ্ঞান বিরোধী চিন্তা, ধর্মীয় অন্ধতা এবং উগ্র সাম্প্রদায়িকতার অনুপ্রবেশের বিরুদ্ধেও ইতিমধ্যেই দেশের প্রথিতযশা বুদ্ধিজীবী শিক্ষাবিদ বিজ্ঞানী অধ্যাপক শিক্ষকদের নিয়ে শিক্ষা আন্দোলনকে আরও শক্তিশালী করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। আশা কর্মী, আইসিডিএস, মিড ডে মিল ওয়ার্কারদের উপর সরকারি বঞ্চনার প্রতিবাদেও গৃহীত হয়েছে আন্দোলনের পরিকল্পনা। এছাড়া বিদ্যুৎ নীতির বিরুদ্ধে, জনজাতি মানুষের উচ্ছেদের প্রতিবাদে আন্দোলনের আহ্বান জানানো হয়েছে।

গণদাবী ৭৩ বর্ষ ৩৭ সংখ্যা