Breaking News
Home / আন্দোলনের খবর / ট্রাম্পকে ধিক্কার দিচ্ছেন ইয়েমেনের মানুষ

ট্রাম্পকে ধিক্কার দিচ্ছেন ইয়েমেনের মানুষ

উত্তর ইয়েমেনের হোডেইভা শহরে তো বটেই, যুদ্ধ বিধ্বস্ত এই ছোট্ট দেশটির জায়গায় জায়গায় ফুটে উঠেছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ব্যাঙ্গচিত্র৷ ছবিটি এই রকম– জার্সি গাইয়ের রূপ নিয়েছেন সৌদি আরবের রাজা৷ পাশে টুলে বসে তার দুধ দুইছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প৷ দুধ জমা হচ্ছে কতকগুলি সোনালি পাত্রে৷ তার গায়ে আঁকা ডলারের ছবি৷ কোথাও আবার এইরকম–একটি প্লেন বোমা ফেলছে, তার মুখের দিকটা ট্রাম্পের মতো, বোমাগুলো সৌদি রাজা৷ এমন নানা চিত্র ফুটে উঠেছে ইয়েমেনের দেওয়ালে৷ বোঝা যায় চার বছর ধরে সৌদি আরবের বকলমে ইয়েমেনে যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছে আমেরিকা৷ ইয়েমেনের মানুষ মার্কিন চক্রান্তটা ধরে ফেলেছেন৷

মার্কিন শাসকদের অপছন্দের হুথি আন্দোলন ১৯৯০–এর পর থেকে ইয়েমেনে জোরদার হয়েছে৷ এই হুথি আন্দোলন দমন করে নিজেদের পছন্দের শাসককে গদিতে টিকিয়ে রাখা এবং ইয়েমেনের সমস্ত প্রাকৃতিক সম্পদ লুঠের ব্যবস্থা করতে মার্কিন–সৌদি জোট যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছে ইয়েমেনের উপর৷ এই যুদ্ধে সমৃদ্ধশালী আরব দেশগুলিকে দুইয়ে নিয়ে নিজের স্বার্থে কাজে লাগাচ্ছে মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ৷ প্রতিদিন শয়ে শয়ে মানুষ মারা যাচ্ছে বিমান হানায়, ক্ষেপণাস্ত্র সহ নানা অস্ত্রের আঘাতে৷ স্কুল বাসের উপর বোমা ফেলতে, ইয়েমেনের প্রায় সব হাসপাতাল বোমা মেরে গুঁড়িয়ে দিতেও মার্কিন–সৌদি জোটের আটকায়নি৷

এর মধ্যেই প্রায় রোজই যুদ্ধ বিরোধী মিছিলে সামিল হচ্ছেন হাজার হাজার ইয়েমেনবাসী৷ তাঁর চিৎকার করে বলছেন– ‘শয়তান, আর কত রক্ত পেলে তোদের এই যুদ্ধ বন্ধ হবে?’ শিক্ষকরাও মিছিলে৷ তাঁরা বলছেন, সামনে সৌদি থাকলেও আমরা জানি আমাদের সন্তানদের আসল খুনি কে? ইয়েমেনের মানুষের এই হার না মানা মনোভাবই সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ৷ বোমা–বন্দুক অস্ত্র যে শেষ কথা বলে না, আবার প্রমাণ করতে চান ইয়েমেনের মানুষ৷

(গণদাবী : ৭১ বর্ষ ৩৪ সংখ্যা)