Breaking News
Home / খবর / জেলায় জেলায় এনআরসি-সিএএ-এনপিআর বিরোধী কনভেনশন-ধরনা

জেলায় জেলায় এনআরসি-সিএএ-এনপিআর বিরোধী কনভেনশন-ধরনা

পলাশী, নদীয়া

বাঁকুড়া : এনআরসির প্রতিবাদে সমগ্র দেশ যখন উত্তাল, তখন তার ঢেউ আছড়ে পড়েছে বাঁকুড়া জেলাতেও। ১৮ জানুয়ারি এনআরসি, সিএএ-র বিরুদ্ধে আইনজীবী চিকিৎসক, অধ্যাপক, শিক্ষক সহ জেলার সর্বস্তরের নাগরিকদের উপস্থিতিতে বাঁকুড়া শহরের ভিওসি হলে কনভেনশন অনুষ্ঠিত হয়। এনআরসির উপর মনোজ্ঞ আলোচনা করেন আইনজীবী অভিষেক বিশ্বাস ও বিবেকানন্দ দে।

এ ছাড়াও মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক আজিজুল আলম খান ও দেবাশিষ গুহ বক্তব্য রাখেন। প্রধান বক্তা ছিলেন সারা বাংলা এনআরসি বিরোধী নাগরিক কমিটির রাজ্য কমিটির সদস্য অংশুমান রায়। সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট নাট্যব্যক্তিত্ব নদীয়াইন্দু বিশ্বাস। নদীয়াইন্দু বিশ্বাসকে সভাপতি এবং হাবুলাল মণ্ডলকে সম্পাদক করে ২২ জনের শক্তিশালী এনআরসি বিরোধী নাগরিক কমিটির বাঁকুড়া জেলা শাখা গঠিত হয়।

মথুরাপুর, দক্ষিণ ২৪ পরগণা

মথুরাপুর : এনআরসি, সিএএ, এনপিআরের বিরুদ্ধে মথুরাপুর ১নং ব্লকের নালুয়া, লালপুর ও কৃষ্ণচন্দ্রপুর অঞ্চলের নাগরিকরা ২৫ জানুয়ারি এক কনভেনশনের মধ্যে দিয়ে গড়ে তোলেন আন্দোলনের কমিটি। কৃষ্ণচন্দ্রপুর মোড়ে অনুষ্ঠিত কনভেনশনে এলাকার বিশিষ্ট কবি মজিবর রহমান পুরকাইত সভাপতিত্ব করেন। বক্তব্য রাখেন জাহাঙ্গীর গাজি, ইয়াসমিনা হালদার, অনিতা চ্যাটার্জী, গুল ইসলাম মোল্লা। সারা বাংলা এন আর সি বিরোধী নাগরিক কমিটির রাজ্য কমিটির সদস্য শিক্ষক চন্দন মাইতি ও সুজিত পাত্র তাঁদের বক্তব্যে নাগরিকত্ব হরণের বিরুদ্ধে লড়াইকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান। শিক্ষক লক্ষ্মণ মণ্ডলকে সম্পাদক ও আব্দুল মজিদ হালদারকে সভাপতি করে ৫০ জনের শক্তিশালী নাগরিক কমিটি গঠিত হয়।

গোয়ালপোখার, উত্তর দিনাজপুর

উত্তর দিনাজপুর : ২৯ জানুয়ারি থেকে গোয়ালপোখরের লোধনচকে নাগরিক অবস্থান শুরু হয়েছে।

হিরহরপাড়া, মুর্শিদাবাদ

মুর্শিদাবাদ : ১ ফেব্রুয়ারি জেলার হরিহরপাড়ায় এনআরসি-সিএএ-এনপিআর বিরোধী নাগরিক কনভেনশন অনুষ্ঠিত হয়।

(গণদাবী : ৭২ বর্ষ ২ সংখ্যা)