Home / অন্য রাজ্যের খবর / কেরালা থেকে উত্তরাখণ্ড : ধর্মঘটে সর্বত্র সক্রিয় এসইউসিআই(সি)–র ট্রেড ইউনিয়ন কর্মীরা

কেরালা থেকে উত্তরাখণ্ড : ধর্মঘটে সর্বত্র সক্রিয় এসইউসিআই(সি)–র ট্রেড ইউনিয়ন কর্মীরা

কর্ণাটক

কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের শ্রমিক মারা নীতির বিরুদ্ধে ৮–৯ জানুয়ারি ৪৮ ঘন্টা ধর্মঘটে সামিল হলেন সারা দেশের কোটি কোটি শ্রমজীবী মানুষ৷ এ আই ইউ টি ইউ সি সহ ১০টি কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়ন এবং শ্রমিক ফেডারেশনগুলি একযোগে ডাক দিয়েছিল এই ধর্মঘটের৷ ডাক, ব্যাঙ্ক, বিমা, ইস্পাত, কয়লাখনি, চা–বাগান, পরিবহণ সহ অন্য সমস্ত সংগঠিত শিল্পে এই ধর্মঘটের ব্যাপক প্রভাব পড়ে সারা দেশে৷ চটশিল্পে এই ধর্মঘট সর্বাত্মক  সফল হয়৷ প্রতিটি রাজ্যেই আশা, অঙ্গনওয়াড়ি, মিড–ডে মিল, মোটরভ্যান সহ অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিকরাও এই ধর্মঘটে সর্বাত্মকভাবে যোগ দেন৷

বাগনান

দিল্লি, মুম্বই, চেন্নাই, বাঙ্গালোর, হায়দরাবাদ, আহমেদাবাদ, পাটনা, জামসেদপুর, লক্ষ্ণৌ, ভোপাল, চণ্ডীগড়, কলকাতা, গুয়াহাটি, আগরতলা, কটক সহ দেশের প্রায় প্রতিটি ছোট–বড় শহরে মিছিল, রাস্তা অবরোধ, রেল রোকো, পিকেটিংয়ে সামিল হন শ্রমজীবী মানুষ৷ জনগণের অন্যান্য শোষিত অংশের ছাত্র–যুব–মহিলারাও এই ধর্মঘটকে সমর্থন জানিয়ে এগিয়ে আসেন৷ এস ইউ সি আই (সি) কর্মীরা ধর্মঘটের প্রস্তুতি পর্বের প্রচারে এবং ধর্মঘট সফল করতে সারা দেশে সক্রিয়ভাবে রাস্তায় নামেন৷ এ আই ইউ টি ইউ সি–র সাধারণ সম্পাদক কমরেড শঙ্কর সাহা ধর্মঘটে অংশগ্রহণ করার জন্য সর্বস্তরের শ্রমজীবী মানুষকে সংগ্রামী অভিনন্দন জানিয়েছেন৷

ওড়িশা

কলকাতায় ৮ জানুয়ারি এসপ্ল্যানেড থেকে মিছিলে নেতৃত্ব দেন এ আই ইউ টি ইউ সি–র পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সম্পাদক কমরেড দিলীপ ভট্টাচার্য৷ মিছিল হিন্দ সিনেমার মোড়ে পৌঁছালে বিনা প্ররোচনায় পুলিশ লাঠি চালায় ও ৩২ জনকে গ্রেপ্তার করে৷ এক কর্মীকে পুলিশ রাস্তায় ফেলে বেধড়ক লাঠিপেটা করে এবং বউবাজার থানায় নিয়ে গিয়েও তাঁর উপর অত্যাচার চালায়৷ ওইদিন কলকাতায় হাজরা, যাদবপুর, মৌলালি, উল্টোডাঙা মোড়ে ৯১ জন কর্মীকে মিছিল থেকে গ্রেপ্তার করে৷ মৌলালিতে মিছিল করার সময় সংগঠনের রাজ্য সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য কমরেড অশোক দাসকে এবং আলিপুরদুয়ার থেকে কমরেড অভিজিৎ রায় সহ ৮ জনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে৷ ফালাকাটায় ১৩ জন কর্মী গ্রেপ্তার হন৷ ৯ জানুয়ারি জলপাইগুড়িতে ১২ জন কর্মীকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে৷ পশ্চিমবঙ্গের সমস্ত জেলাতে এ আই ইউ টি ইউ সি–র নেতৃত্বে রেল ও রাস্তা অবরোধ, মিছিল সংগঠিত হয়৷ সারা রাজ্যে সংগঠনের দুই শতাধিক নেতা–কর্মী ও শ্রমিক গ্রেপ্তার হন৷

গুজরাট

৯ জানুয়ারি কলকাতায় সুবোধ মল্লিক স্কোয়ার থেকে মিছিল এসপ্ল্যানেড পৌঁছালে কমরেড দিলীপ ভট্টাচার্য নরেন্দ্র মোদির কুশপুত্তলিকায় অগ্নি সংযোগ করেন৷ ওই দিনও পশ্চিমবঙ্গ সহ সারা দেশে অবরোধ, মিছিল, পিকেটিং হয়৷ সরকারি প্রশাসন, মালিকদের গুন্ডাবাহিনীর প্ররোচনা, হুমকি, আক্রমণ সত্ত্বেও ধর্মঘটে অংশগ্রহণ করার জন্য কমরেড ভট্টাচার্য রাজ্যের জনগণকে অভিনন্দন জানান এবং এই ধর্মঘট থেকে শিক্ষা নিয়ে দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত বৃহত্তর ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান৷

বিহার
পুদুচেরি

(গণদাবী : ৭১ বর্ষ ২২ সংখ্যা)