Home / অন্য রাজ্যের খবর / কাজের দাবিতে দিল্লিতে যুব বিক্ষোভ

কাজের দাবিতে দিল্লিতে যুব বিক্ষোভ

কোথায় বছরে ২ কোটি চাকরি! কাজের দাবিতে দিল্লিতে যুব বিক্ষোভ

২৭ ফেব্রুয়ারি, রাজধানী দিল্লির বুকে আছড়ে পড়ল বিশাল যুব বিক্ষোভ৷ যুব সংগঠন এ আই ডি ওয়াই ও–র ডাকে ভারতের প্রায় প্রতিটি রাজ্য থেকে হাজার হাজার যুবক মিছিলে সামিল হলেন মান্ডি হাউস থেকে যন্তরমন্তর পর্যন্ত৷

যন্তরমন্তরে পুলিশ মিছিল আটকালে সেখানেই শুরু হয় সভা৷ বিক্ষোভের প্রস্তুতিতে দেশ জুড়ে ডি ওয়াই ও কর্মীরা প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে প্রেরিত চিঠিতে লক্ষ লক্ষ যুবকের স্বাক্ষর সংগ্রহ করেছেন৷ প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে প্রেরিত এই চিঠিতে দাবি তোলা হয়েছে সমস্ত সরকারি শূন্যপদে নিয়োগ করতে হবে, কাজের অধিকারকে মৌলিক অধিকার হিসাবে ঘোষণা করতে হবে, চুক্তি–ভিত্তিক নয়– স্থায়ী কাজ চাই,  কাজ না পাওয়া পর্যন্ত মর্যাদাপূর্ণ বেকারভাতা দিতে হবে৷ রাজ্যগুলির রাজ্যপাল বা মুখ্যমন্ত্রীর মাধ্যমে এই দাবিপত্র প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে পাঠানো হয়েছে৷

বিক্ষোভ সমাবেশে চলচ্চিত্র অভিনেতা ও সমাজকর্মী প্রকাশ রাজ বলেন, নোট বাতিলের ফলে কয়েক লক্ষ মানুষ কাজ হারিয়েছে৷ মূল সমস্যা থেকে যুবকদের চোখ ঘোরাতে বিজেপি সরকার গো–রক্ষার নামে নরহত্যা করছে৷ জাত–পাত–সাম্প্রদায় ভিত্তিতে বিভাজন করতে চাইছে৷ তিনি বলেন, মোদিজি দলিতদের পা ধোয়ানোর নাটক করেন, তাদের চোখের জল মোছাতে পারেন না৷

দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশিষ্ট অধ্যাপক অপূর্বানন্দ বলেন, সরকার যুদ্ধ উত্তেজনায় যুবকদের ফাঁসিয়ে দিতে চাইছে৷ কারণ এই ভয়াবহ বেকারত্বের কোনও উত্তর তাদের কাছে নেই৷ তিনি ডি ওয়াই ও–র লড়াইকে মানবতা রক্ষার লড়াই বলে অভিহিত করেন৷

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক কমরেড প্রতিভা নায়ক বলেন, বছরে ২ কোটি চাকরির বদলে ৪০ কোটি বেকার বাহিনী তৈরি করেছে মোদি সরকার৷ ২০২১–এর মধ্যে দেশের জনসংখ্যার ৬৪ শতাংশ লোক বেকার হয়ে যাবে৷ সরকার যতই বাগাড়ম্বর করুক, পুঁজিবাদী ব্যবস্থার সেবা করলে চাকরির সুযোগ তৈরি কোনও মতেই সম্ভব নয়৷ সংগঠনের সর্বভারতীয় সভাপতি কমরেড জানাপ্পা আলদালি বলেন, সরকার ১০০ দিনের প্রকল্পে বরাদ্দ ছাঁটাই করছে, কৃষি অলাভজনক হয়ে পড়ছে, ফলে গ্রামীণ বেকারত্বও ভয়াবহ আকার নিচ্ছে৷ তিনি এই পুঁজিবাদী ব্যবস্থার উচ্ছেদের জন্য বিপ্লবী আন্দোলনে সামিল হতে যুবকদের আহ্বান জানান৷ এস ইউ সি আই (সি) কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড অরুণ সিং এবং সংগঠনের সহ সভাপতি জুবের রব্বানিও বক্তব্য রাখেন৷

(গণদাবী : ৭১ বর্ষ ৩০ সংখ্যা)